SLIDER

Navigation-Menus (Do Not Edit Here!)

গর্ভকালীন রক্তশূন্যতা

গর্ভকালীন রক্তশূন্যতা আমাদের দেশের মেয়েদের সবচেয়ে কমন সমস্যা।  রক্তশূন্যতা বা রক্তাল্পতা বা রক্তস্বল্পতা (অ্যানিমিয়া) হল রক্তে রক্তকণিকা স্বল্পতা অথবা রক্তের পরিমাণ বা অক্সিজেনবাহী রক্তরঙ্গক হিমোগ্লোবিনের অভাব।
কয়েক ধাপ সিঁড়ি উঠলেন। এতেই হাঁপিয়ে গেলেন! এটি কি কোনো শারীরিক সমস্যা, না অন্য কিছু। এ বিষয়ে কথা
বললেন ঢাকা মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালের মেডিসিন বিভাগের অধ্যাপক খান আবুল কালাম আজাদ। তিনি বলেন, অল্পতেই হাঁপিয়ে ওঠার তিনটি প্রধান কারণ রয়েছে। সেগুলো হলো— রক্তস্বল্পতা, ফুসফুসের কোনো রোগ এবং হৃদপিণ্ডের কোনো অসুখ। রক্তস্বল্পতায় যাঁরা ভুগছেন, তাঁদের অন্যান্য লক্ষণের পাশাপাশি অল্পতেই হাঁপিয়ে ওঠাও একটি লক্ষণ হতে পারে।
কারও কারও ক্ষেত্রে শ্বাসনালির বিভিন্ন রোগেও দেখা দেয় অল্পতেই হাঁপিয়ে ওঠার সমস্যা। যাঁরা অ্যাজমা, ক্রনিক অবস্ট্রাকটিভ পালমোনারি ডিজিজ বা সিওপিডি প্রভৃতি অসুখে ভুগছেন, তাঁদের হতে পারে এমন সমস্যা। ফুসফুসে ফাইব্রোসিস হয়ে যাঁদের ফুসফুসের প্রসারণ ক্ষমতা কমে যায়, তখনো অল্পতেই হাঁপিয়ে উঠতে পারেন ।
আবার স্বল্প সময়ের কোনো ফুসফুসের অসুখ থেকেও এ সমস্যা দেখা দিতে পরে।
হৃদপিণ্ডের কর্মক্ষমতা কমে যাওয়া, রক্তপ্রবাহে জটিলতার কারণে ও হৃদপিণ্ডে রক্ত সঞ্চালন কম হলে বুকে ব্যথা
অল্পতেই হাঁপিয়ে ওঠার সমস্যা হতে পারে।

চিনে নিন গর্ভকালীন রক্তশূন্যতার বিপদচিহ্ন

  • অল্পতেই হাঁপিয়ে ওঠার সঙ্গে দ্রুতগতির হৃদস্পন্দন এবং রক্তচাপ কমে যাওয়া
  • চেহারা নীল হয়ে যাওয়া
  • কথা বলার সময় এক নিঃশ্বাসে কথা শেষ করতে না পারা
  • ঘোরের মধ্যে চলে যাওয়া

গর্ভকালীন রক্তশূন্যতার প্রতিকার ও প্রতিরোধ


অল্পতেই হাঁপিয়ে উঠলে আতঙ্কিত না হয়ে চিকিৎসকের শরণাপন্ন হন। সমস্যা প্রকট আকার ধারণ করলে হাসপাতালে গিয়ে অক্সিজেন নেওয়ার প্রয়োজনও হতে পারে।
: যাঁদের শীতকালে শ্বাসকষ্ট হয়ে থাকে বা শ্বাসকষ্টে ভুগছেন, তাঁদের চিকিৎসকের পরামর্শমতো শ্বাসকষ্টের চিকিৎসা করানো উচিত।
: কোনো কিছুতে অ্যালার্জি থাকলে তা এড়িয়ে চলতে হবে।
: যদি বুকে চাপের সঙ্গে অল্প সময়ে হাঁপিয়ে ওঠার সমস্যা হয়,
তাহলে হৃদপিণ্ডের কর্মক্ষমতা পরীক্ষা করে দেখা উচিত।

গর্ভকালীন রক্তশূন্যতা  এড়াতে যা করণীয়—

  1. খনিজসমৃদ্ধ খাবার খেতে হবে, অন্যান্য পুষ্টি উপাদানও থাকতে হবে প্রতিদিনের খাদ্যতালিকায়।
  2. খালি পায়ে মাটিতে হাঁটা যাবে না।
  3. কৃমির ওষুধ খেতে পারেন।
  4. মেয়েদের ক্ষেত্রে মাসিকের সময় অতিরিক্ত রক্তস্রাব হলে চিকিৎসকের পরামর্শ নিতে হবে।
  5. বয়স্কদের ক্ষেত্রে রক্তস্বল্পতা দেখা দিলেই দ্রুত চিকিৎসকের কাছে যেতে হবে।

Pages