SLIDER

Navigation-Menus (Do Not Edit Here!)

খাবারে বেশি ঝাল হয়ে গেছে? জেনে নিন বাড়তি ঝাল কমানোর দারুণ ৯টি উপায়

ভুল করে খাবারে ঝাল বেশি দিয়ে ফেলেছেন, এখন মুখেই দেয়া যাচ্ছে না? দুশ্চিন্তার কিচ্ছু নেই, খাবার থেকে বাড়তি ঝাল কমিয়ে ফেলার জন্য আছে দারুণ কিছু উপায়। ঝোল হোক, ভুনা হোক, স্যুপ হোক ভাজাপোড়া হোক বা চাইনিজ খাবার; সব ধরণের খাবার থেকেই ঝাল কমিয়ে ফেলার জন্য জেনে নিন দারুণ কিছু টিপস।
১) খাবারটি যদি স্যুপ বা ঝোল জাতীয় কিছু হয়ে থাকে, তবে এতে যোগ করুন আরও পানি এবং কয়েক টুকরো আলু। এই আলু পরে তুলে ফেলেও দিতে পারেন, আবার খেতেও পারেন। ঝাল অনেকটাই কমে আসবে।
২) যদি ফ্রাইড রাইস বা ন্যুডুলস জাতীয় কোন খাবার হয়ে থাকে, তাহলে আরও রাইস বা নুডুলস সিদ্ধ করে এতে যোগ করুন। মাংস বা সবজিও যোগ করতে পারেন।, ঝাল কমে আসবে।
৩) দুধ বা টক দই ঝাল কমানোর জন্য দুটি দারুণ উপাদান। যে ধরণের ঝোল বা ভুলার তরকারিতে দুধ বা টক দই যোগ করুন, ১৫/২০ মিনিট দমে রাখুন। ঝাল একদম কমে আসবে।
৪) কোন কিছু মেরিনেট করেছিলেন ভাজবেন বলে, এখন সেটায় ঝাল বেশি মনে হচ্ছে। জিনিসটা স্রেফ পানিতে ধুয়ে ফেলুন। মশলা যা ফেতরে যাওয়ার চলে গেছে, পানিতে ডুবালে ঝাল কমে আসবে। আবার যে ব্যাটারে ডুবিয়ে ভাজবেন, সেটায় ঝাল কম দিন। ব্যালান্স হয়ে যাবে।
৫) কোন কিছু ভাজবেন, ব্যাটারে ঝাল বেশি হয়ে গেছে? দুধ মিশিয়ে দিন, ঝাল কমে যাবে।
৬) লেবুর রস ঝাল কমাতে সহায়ক। যে কোন খাবারে ঝাল কমাতে লেবুর রস দিতে পারেন।
৭) ভাজা খাবারে ঝাল বেশি হয়েছে? সাথে পরিবেশন করুন টক দইয়ের রায়তা। ঝাল কেউ ধরতেই পারবে না।
৮) যে কোন ধরণের ঝোল বা ভুনা, বিরিয়ানি, রোস্ট, রেজালা ইত্যাদি খাবার ঠেলে ঝাল কমাতে যোগ করুন বাদাম বাটা বা মালাই। ঝাল একেবারেই থাকবে না।
৯) চিনি যে কোন ঝালকেই ব্যালান্স করে আনে। আর কিছু না থাকলে চিনিটাই ব্যবহার করুন!

Pages