SLIDER

Navigation-Menus (Do Not Edit Here!)

যৌনতাকে আরও উপভোগ্য করতে আসছে নারীদের জন্য বিশেষ কনডম

নারীদের জন্য নতুন প্রযুক্তির ও আধুনিক কনডম নিয়ে আসলো মিশিগান ভিত্তিক কোম্পানি আইএক্সইউ(IXü)। কনডমটির নাম দেয়া হয়েছে ভিএ ডব্লিউ.ও.ডব্লিউ (VA w.o.w.)। আপনার কাছে হয়তো এই কনডম অনেক অনাকর্ষণীয় মনে হতে পারে। কিন্তু কোম্পানিটির দাবি, এই কনডম সহ যৌনমিলন যতটা উপভোগ করবেন কনডম ছাড়াও এতটা উপভোগ্য মনে হবে না।

আধুনিক সব প্রযুক্তির সব মিশ্রণে তৈরি এই কনডম হার্ট আকৃতির। ইলেক্ট্রনিক ‘সেক্স টয়’ প্রযুক্তির সঙ্গে সাধরণ কনডমের একীভূত করায় তৈরি হয়েছে এটি। এর সঙ্গে যুক্ত আছে ভাইব্রেটর যা একটি রিমোট কন্ট্রলের মাধ্যমে নিয়ন্ত্রণ করা সম্ভব। কনডমের শেষাংশে একটি ছোট স্পঞ্জ যুক্ত করা হয়েছে।
কোম্পানির করা একটি পরিসংখ্যান মতে ৭০ শতাংশ নারী এটি ব্যবহার করে সেক্সে তৃপ্তি পেয়েছেন। এবং যারা ভেবেছেন যে একবারের চেষ্টাই যথেষ্ট না তারা দ্বিতীয়বারের মতো ব্যবহার করেও সন্তুষ্ট ছিলেন।
এই আবেদন ঐতিহ্যগত কনডমের চেয়ে অনেকবেশি। ৯০ দশকের শুরুর দিকে নারীদের জন্য একটি কনডম বাজারে আসে যেটি পুরুষরাও পড়তে পারতো। কিন্তু বেশিরভাগ যুগলই এটি ব্যবহার করতে চাইতো না। কারণ তাদর মনে হতো তারা যৌনাঙ্গে কোনো পেপার বাস্কেট রেখে দিয়েছে এবং সেখানে পুরুষাঙ্গ প্রবেশ করছে। অনেকে আবার কনডমের ব্যবহারের কারণে অনাকাঙ্খিত শব্দের কারণেও বিরক্ত ছিলেন।
এরপরই নারীরা কনডম ব্যবহারে অনাগ্রহী হয়ে পরেন। পরিসংখ্যান বলছে বিশ্বে মাত্র ১.৬ শতাংশ নারী কনডম ব্যবহার করেন। আরতাই কোম্পানিটি প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা ব্রায়ন ওস্টারবার্গ জানান, নারীদের এই কনডম এর ব্যাপারে তাদের সুদূরপ্রসারী পরিকল্পনা রয়েছে।
তিনি বলেন, ‘আমরা মনে করি বিংশ শতাব্দীতে আধুনিক প্রযুক্তির মাধ্যমে নারীদের জন্য কনডম আনা যেতে পারে। আপনার ফ্যাশনের রুচিবোধ যেমনই হোক না কেন, এই কনডম ব্যবহারে আপনি আগ্রহী হবেন। আপনারা জানেন সেক্স টয় গুলো কতটা জনপ্রিয়। আমরা যদি কনডমের সঙ্গে এর মিশ্রণ ঘটাতে পারি তাহলে অবশ্যই এক্ষেত্রে সফলতা সম্ভব।’
তবে এমন পদক্ষেপ এবারই প্রথম নয় কোম্পানিটির। আধুনিক প্রযুক্তির মাধ্যমে পুরোনো জিনিস নতুনভাবে সকলের সামনে উপস্থাপন করার জন্য বেশ খ্যাতি আছে কোম্পানিটির। ২০১৩ সালে এজন্য গেটস ফাউন্ডেশন তাদেরকে ১ লক্ষ ডলার সহায়তা দিয়েছিলো। তাদের উদ্দেশ্য ছিলো নারী ও পুরুষদের জন্য কনডম তৈরি।
স্টক ইমেজ অফ কনডম মেরি স্টোপস এর যুক্তরাজ্যের পরিচালক জেসন ওয়ারিনার ইনডেপেন্ডেন্ট কে জানান, নারীদের কনডম আসলে নারীর ক্ষমতায়নের জন্য প্রয়োজন। এবং এটি তাদেরকে সুস্থ্ থাকতে সাহায্য করে। একইসঙ্গে এটি এইচআইভি থেকে তাদের নিরাপদ রাখে। নারীদের কনডম অনেকদিন ধরেই ছেলেদের কনডমের মতো জনপ্রিয় না হলেও এখন এ রীতি ভাঙতে পারে বলে বিশ্বাস জেসনের।
তবে এই কনডমের জন্য এখন্ও ১৮-২৪ মাস পর্যন্ত অপেক্ষা করতে হবে। আরো গবেষণা করে তবেই বাজারে ছাড়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে ভিএ ডব্লিউ.ও.ডব্লিউ।

Pages