SLIDER

Navigation-Menus (Do Not Edit Here!)

আসছে নগ্নতায় সাহসী পদক্ষেপ ‘ন্যুড ব্রা’

স্থান দখল করে আছে- কালিদাস থেকে শুরু করে আজকের কবির উপমায় অনন্য ভূমিকা তার। আর সেই বক্ষের যত্নে ও আরামে প্রয়োজন সঠিক বক্ষবন্ধনী। বাইরের বেশবাস কেতাদুরস্ত না হলেও চলে- তবে অন্তর্বাসে
শতভাগ সন্তুষ্টি অপরিহার্য।
যুগ ও ফ্যাশনের সঙ্গে পাল্লা দিয়ে অন্তর্বাসের রং, ডিজ়াইনে বদল এসেছে। ষোড়শ শতকের পরবর্তী সময়ে কাঁচুলি দিয়ে বুক ঢাকতেন মহিলারা। তারপর কাপ সাইজের ব্রেসিয়ারের চল শুরু হয়। এরপর একে একে সাঁতারের উপযোগী ব্রা, কোন শেপ, স্প্যানডেস্ক নানা রকমের অন্তর্বাস বাজারে এসেছে।
একটা সময় মহিলারা উলের অন্তর্বাস ব্যবহার করতেন। তারপর ক্রমশ কটন, ফোম, চামড়া, লিলেন, প্লাস্টিক এবং লেস এমনকি ধাতুর অন্তর্বাসও এসেছে। আর সেই সব কিছুকে পেছনে ফেলে দিতে এবার বাজারে আসছে ‘নগ্ন’ ব্রা।
নগ্নতাকে রঙিন এবং রকমারি অন্তর্বাসের মধ্যে রেখে নারীদে জন্য নতুন ধরনের বক্ষবন্ধনী বাজারে আনতে চলেছে হোসিয়ারি কোম্পানি মেইনল্যান্ড। লেস এবং ফোমের তৈরি এই বক্ষবন্ধনীগুলি যেকোন শারীরিক গঠনের সঙ্গে মানানসই ও আকর্ষক। কালোজাম এবং দারুচিনি রঙের এই ব্রা নারীদের- বিশেষত কালো এবং শ্যামলা মহিলাদের আত্মপ্রত্যয় বাড়িয়ে তুলবে বলে মনে করেন হোসিয়ারি কোম্পানি কর্তৃপক্ষ।
অনেক নারী বক্ষের সৌন্দর্য ফুটিয়ে তোলার জন্যবি ব্যবহার করেন পুশ আপ বা বিভিন্ন ধরণের ব্রা। অনেকে আবার দাম দেখে কেনেন অন্তর্বাস। কিন্তু বক্ষবন্ধনীটি স্বাস্থ্যের পক্ষে কতটা উপযোগী- সবার আগে দেখা দরকার তা। বক্ষবন্ধনী তৈরির ক্ষেত্রে কী ধরনের কাপড় ব্যবহার করা হচ্ছে, সেটাও জানা দরকার। এসব দিকে লক্ষ্যে রেখেই তৈরি হয়েছে নগ্ন অন্তর্বাস।
বৈচিত্র্যময় এই নুড ব্রা সব ধরনের গায়ের রঙের সঙ্গে মানানসই হবে। নারীর ব্যক্তিত্বে ভিন্ন মাত্রা দেওয়ার পাশাপাশি নগ্নতার সংজ্ঞা পুর্নবিবেচনার পরিসর গড়ে তুলতে পারে ন্যুড ব্রা।

Pages