SLIDER

Navigation-Menus (Do Not Edit Here!)

মোরগ দোপেয়াজা

মোরগের কত প্রকারের রান্না এই দুনিয়াতে আছে তা কে জানে! মোরগ বা চিকেন এমনি এক প্রকারের খাবার এই দুনিয়ায় যে, এটা যে কোন ভাবে রান্না করে এমনকি আগুনে শুধু ঝলসে দিলেও দুনিয়ার বেশিরভাগ মানুষ এটা খেতে পারবে। দুনিয়ার সকল স্থানের, সকল মানুষকে মোরগ/মুরগী
বা চিকেনের কাছে প্রানঢালা শুভেচ্ছা ও কৃতজ্ঞতা জানানো উচিত। হা হা হা… দুনিয়াতে এই প্রানী না থাকলে মানুষ এই প্রানীর বিশেষ বিশেষ খাবার থেকে বঞ্চিত হত! আহ চিকেন!
যাই হোক, চলুন আজ মোরগের দোপেয়াজা দেখে ফেলি। দোপেয়াজা কথাটার মানে হচ্ছে পেঁয়াজ বেশি দিয়ে ভুনা টাইপ কিছু। মাছ মাছালি বেশী দোপায়াজা হলে আমরা সাধারণত মোরগ বা চিকেন দোপেয়াজা করি না। এটা আমাদের একটা একক প্রচেষ্টা, স্বাদ আরো আরো বাড়াতে আমরা শেষে টমাটো সসের ব্যবহার করেছি! আপনিও এভাবে চিকেন রান্না করে দেখতে পারেন, আশা করি ভাল লাগবে। শুধু সুস্বাদু নয়, আমার মনে হয় একবার রান্না করলে বার বার রান্না করবেন।
উপকরনঃ
– চিকেনঃ ১ কেজির মত
– পেঁয়াজ কিউবঃ ২ কাপ (ফালি ফালি করে কাটা)
– আদা বাটাঃ ১ টেবিল চামচ
– রসুন বাটাঃ ১ টেবিল চামচ
– হলুদ গুড়াঃ হাফ চা চামচ বা তারও কম
– মরিচ গুড়াঃ ১ চা চামচ (বুঝে শুনে, ঝাল বেশী হলে আবার শিশুরা খেতে পারবে না! ঝাল পরিমিত হওয়া জরুরী)
– এলাচিঃ ৪/৫ টি
– দারুচিনিঃ ১ ইঞ্চির ৩/৪ টুকরা
– কাঁচা মরিচঃ ৪/৫ টা (আস্ত, শেষে দেবার জন্য)
– লবনঃ পরিমান মত (দুই ধাপে)
– তেলঃ সয়াবিন তেল হাফ কাপের চেয়ে কম (দুই ধাপে এই তেল ব্যবহার করতে হবে)
– ৪ টেবিল চামচ টমেটো সস।
প্রনালীঃ
(এটা মুলত দুই ধাপের রান্না। প্রথম ধাপে চিকেনকে ভেঁজে নিতে হবে এবং দ্বিতীয় ধাপে রান্না)
১। চিকেন কেটে ভাল করে ধুয়ে নিন। সামান্য হলুদ গুড়া এবং লবন দিয়ে মেখে কিছুক্ষনের জন্য রেখে দিন।
খোলা তাওয়ায় কিছু তেল গরম করে চিকেন দিয়ে দিন। চিকেন ভাঁজতে থাকুন। কিছু সময়ের জন্য ঢাকনা দিতে ভুলবেন না, এতে চিকেন নরম হয়ে যাবে এবং চিকেন থেকে পানি বের হয়ে যাবে।

Pages